বুধবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ফ্রান্স বাংলা প্রেস ক্লাবে’র ব্যানারে জামাতের প্রতিবাদ সভা  » «   ফরাসী পতাকার ৩ টি রং এর মানে কি?  » «   Victor Hugo এর সংক্ষিপ্ত জীবনী  » «   পানির উচ্চতা মাপার কাজে নিয়োজিত জুয়াভ  » «   রাইয়াদ আদ্দীন তিশান এর ১ম জন্মদিন উদযাপন  » «   দেশব্যাপী জামায়াতের হরতাল চলছে  » «   শাবি ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  » «   আজ বিশ্ব মা দিবস  » «   নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৬  » «   সাংবাদিকদের জন্য নবম ওয়েজ বোর্ড গঠনের আহ্বান রওশনের  » «   সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের নির্বাচন আজ  » «   নির্ঘুম রাতে ডাকাত আতঙ্ক এ ব্যর্থতা কার ?  » «   প্রচারণা শেষ : সিলেটের তিন উপজেলায় ভোটের লড়াই কাল  » «   জামায়াত হরতাল ডাকায় পিছিয়েছে এইচএসসি পরীক্ষা  » «   নিজামীর ফাঁসির রায় বহাল রাখায় সিলেটে আনন্দ মিছিল  » «  

বেশি বুদ্ধিমান হবার ৭টি মারাত্মক সমস্যা!

6. buddimanরকমারি ডেস্ক:
অন্যদের চাইতে আপনার আই কিউ এতো বেশি যে তা ঈর্ষনীয়। কিন্তু তাতে কি আপনার জীবন অনেক সহজ হয়ে গেছে? কিছু কিছু ক্ষেত্রে সহজ হলেও বুদ্ধিমান মানুষ এমন কিছু সমস্যায় পড়ে যা আমরা, সাধারণ মানুষেরা ঘুণাক্ষরেও টের পাই না। বিশ্বাস হচ্ছে না? দেখুন বেশি বুদ্ধিমান হবার বিপত্তিগুলো।

১) পরিশ্রমের মূল্য জানেন না আপনি
বয়স কম থাকতেই যদি আপনি বুঝে যান যে অন্যদের থেকে আপনার বুদ্ধি বেশি, তাহলে দেখা যাবে আপনি পরিশ্রম না করেই কাজ করে ফেলছেন। সুতরাং পরিশ্রমের মূল্যটি আপনি কখনো বুঝে উঠতে পারবেন না, এর অভ্যাসটাও আপনার হবে না। জীবনে অনয় কোনো সময়ে আপনার যখন পরিশ্রমের দরকার হবে, তখন বিপদে পড়তে হবে আপনাকে।

২) অনুভূতির চাইতে চিন্তা বেশি
সাধারণ মানুষ আবেগি হয়ে পড়লে কী করেন? তারা হাসেন, দাঁত কিড়মিড় করেন, চিৎকার করেন, কাঁদেন, হাত পা ছোঁড়েন। আর বুদ্ধিমান মানুষ? তারা নিজের আবেগটাক দমন করেন, সময় নিয়ে ভাবেন এর ব্যাপারে আর কথার মাধ্যমে তা প্রকাশ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু যতো কথাই ব্যবহার করেন না কেন, তাদের অনুভুতি ঠিকমতো প্রকাশিত হয় না।

৩) আপনি দরকারের চাইতে বেশি চিন্তা করেন
কোনো কাজ করার আগে একজন সাধারণ মানুষ দুইবার চিন্তা করেন। আপনি করেন বিশবার বা তারো বেশি। এভাবে বারবার চিন্তা করতে করতে মাথা খারাপ হবার জোগাড় হয় আপনার। কিন্তু এভাবে চিন্তা না করেও থাকতে পারেন না আপনি। এমনকি কোনো সিদ্ধান্ত নেবার আগে এভাবে বার বার চিন্তা করতে গিয়ে দেখা যায়, সিদ্ধান্ত নেবার সাহসটাই হারিয়ে ফেলেছেন আপনি।

৪) ভূল শুধরে দিতে গিয়ে ঝামেলায় পড়েন আপনি
অন্যদের চাইতে বেশি জানেন এবং বোঝেন আপনি। এ কারণে কথাবার্তার মাঝে তাদের ছোটখাটো ভুল ধরিয়ে দেওয়ার কাজটা আপনি করে থাকেন সচরাচর। আপনার চোখে এই কাজটি তুচ্ছ হলেও অন্যদের কাছে এটা ভীষণ বিরক্তিকর এবং তারা এর জন্য আপনার ওপর হাড়ে হাড়ে চটে থাকতে পারে।

৫) অন্যরা বেশি বেশি প্রত্যাশা করে আপনাকে নিয়ে
পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, আপনাকে সবার সেরা হতেই হবে। তা স্কুল-কলেজে হোক, অফিসে হোক অথবা অন্য কিছু। আর এই প্রত্যাশার চাপ সারাক্ষণ আপনাকে ঘিরে রাখে, অন্যদেরকে নিরাশ করার ভয় থাকে আপনার মনে।

৬) আপনি ভালো করেই বোঝেন আপনি কতোটা অজ্ঞ
সাধারণ বুদ্ধির মানুষ অল্প কিছু জানা থাকলেই ভাবেন আমরা কতো বুদ্ধিমান। তাদের চোখে আপনি তো একেবারে সুপারম্যান! কারণ আপনি তাদের চাইতেও অনেক বেশি সমঝদার। কিন্তু বুদ্ধি বেশি বলে আপনি এটাও জানেন, পৃথিবীতে জানার মতো কতো কিছু আছে আর তার সামনে আপনার জ্ঞান কতোটা ক্ষুদ্র। এ কারণে যখন অন্যেরা নিজেদের সীমিত জ্ঞান নিয়ে সুখি, তখন আপনি নিজের অজ্ঞতা নিয়ে দুঃখের সাগরে ভেসে চলেছেন।

৭) মানুষ আপনাকে দাম্ভিক মনে করে
আপনি নতুন কিছু শিখেছেন, এই কথা সাধারণ কথোপকথনের মাঝে বলতে গিয়ে দেখুন, মানুষ মনে করবে আপনি নিজের জ্ঞান নিয়ে বড়াই করতে এসেছেন। ফলে তাদের সাথে আরও দুরত্ব বাড়বে আপনার।

সর্বশেষ সংবাদ