শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ফ্রান্স বাংলা প্রেস ক্লাবে’র ব্যানারে জামাতের প্রতিবাদ সভা  » «   ফরাসী পতাকার ৩ টি রং এর মানে কি?  » «   Victor Hugo এর সংক্ষিপ্ত জীবনী  » «   পানির উচ্চতা মাপার কাজে নিয়োজিত জুয়াভ  » «   রাইয়াদ আদ্দীন তিশান এর ১ম জন্মদিন উদযাপন  » «   দেশব্যাপী জামায়াতের হরতাল চলছে  » «   শাবি ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  » «   আজ বিশ্ব মা দিবস  » «   নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৬  » «   সাংবাদিকদের জন্য নবম ওয়েজ বোর্ড গঠনের আহ্বান রওশনের  » «   সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের নির্বাচন আজ  » «   নির্ঘুম রাতে ডাকাত আতঙ্ক এ ব্যর্থতা কার ?  » «   প্রচারণা শেষ : সিলেটের তিন উপজেলায় ভোটের লড়াই কাল  » «   জামায়াত হরতাল ডাকায় পিছিয়েছে এইচএসসি পরীক্ষা  » «   নিজামীর ফাঁসির রায় বহাল রাখায় সিলেটে আনন্দ মিছিল  » «  

আঙুল দেখে বুঝে নিন কোন মানুষ কেমন!

full_2037382683_1451116402লাইফ স্টাইল ডেস্ক: কেন মানুষ কেমন তার বুঝার জন্য আমরা কত কৌশলই না অবল্বন করি। তারপরও আপনার সামনে বসা মানুষটি কেমন বোঝা খুব কঠিন। তাহলে জেনে নিন কিভাবে সহজেই বুঝবেন কোন মানুষ কেমন।

আপনার আঙুলের দিকে একবার তাকিয়ে দেখুন তো? তর্জনি কি অনামিকার থেকে একটু লম্বা লাগছে? নাকি অনামিকাই লম্বা বেশি। এরকম প্রশ্ন শুনে অবাক লাগছে নিশ্চয়। ভাবছেন কোনটা লম্বা তাতে কি এসে যায়! আপনার হাতের মাঝের তিনটি আঙুলই কিন্তু জানান দেবে আপনার পার্সোনালিটি। মানে এক জনের আঙুল দেখেই বুঝতে পারবেন তিনি মিষ্টভাসি নাকি বদমেজাজি।

১) অনামিকা যখন লম্বা (এ): মিষ্টভাসি
এই ক্ষেত্রে অনামিকা তর্জনির চেয়ে লম্বায় বেশি হয়। যাদের অনামিকা বেশি লম্বা তারা মিষ্টভাসি। খুব চটপটে ও সুন্দর হয়। নিজের সঙ্গে কথা বলতে ভালবাসেন। অবশ্যই মিষ্টভাসি হওয়ায় বন্ধুরাও তাদেরকে খুব পছন্দ করে থাকে। বিপদে পড়লে সাহায্যের জন্যও প্রস্তুত থাকে সকলে। ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে পছন্দ করেন আর খুব সহজেই যে কোনও সমস্যার সমাধান করতে পারেন।

২) তর্জনি যদি বেশি লম্বা হয় (বি): আত্মবিশ্বাসী
অনামিকার চেয়ে যাদের তর্জনি বেশি লম্বা তারা সাধারণত আত্মবিশ্বাসী হয়ে থাকে। আর এই আত্মবিশ্বাস থেকে অনেকের মধ্যেই অহংকার বোধ দেখা যায়। এই ধরণের ব্যক্তিত্বরা অন্তর্মুখী হন না। তবে অনেক ক্ষেত্রে চুপ থেকে নিজের কাজ করতে পছন্দ করেন। লক্ষ্য স্থির করে এগোতেই ভাসবাসেন। চট করে নতুন সম্পর্কে আবদ্ধ হতে পারেন না। এই ক্ষেত্রে এরা মূলত লাজুক। যা আছে তা নিয়ে সুখী হলেও সব সময়ই আরও বেশি কিছু পাওয়ার আশা রাখে।

৩) তর্জনি আর অনামিকার দৈর্ঘ্য যদি সমান হয় (সি): শান্তিপ্রিয়
ঠিক করে দেখুন তো আপনি এই শ্রেণির মধ্যে পড়েন কি না। যাদের তর্জনি এবং অনামিকার দৈর্ঘ্য সমান বা তর্জনি অনামিকা ছুই ছুই তারা মূলত শান্তিপ্রিয় মানুষ। বাকবিতণ্ডা, তর্কাতর্কি, ঝগড়া এড়িয়ে চলেন। যে কোনও পরিস্থিতিতে সুসম্পর্ক বজায় রাখেন। এই শ্রেণির লোকেদের খুব সহজেই বিশ্বাস করা যায়।

সর্বশেষ সংবাদ