শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ফ্রান্স বাংলা প্রেস ক্লাবে’র ব্যানারে জামাতের প্রতিবাদ সভা  » «   ফরাসী পতাকার ৩ টি রং এর মানে কি?  » «   Victor Hugo এর সংক্ষিপ্ত জীবনী  » «   পানির উচ্চতা মাপার কাজে নিয়োজিত জুয়াভ  » «   রাইয়াদ আদ্দীন তিশান এর ১ম জন্মদিন উদযাপন  » «   দেশব্যাপী জামায়াতের হরতাল চলছে  » «   শাবি ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  » «   আজ বিশ্ব মা দিবস  » «   নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৬  » «   সাংবাদিকদের জন্য নবম ওয়েজ বোর্ড গঠনের আহ্বান রওশনের  » «   সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের নির্বাচন আজ  » «   নির্ঘুম রাতে ডাকাত আতঙ্ক এ ব্যর্থতা কার ?  » «   প্রচারণা শেষ : সিলেটের তিন উপজেলায় ভোটের লড়াই কাল  » «   জামায়াত হরতাল ডাকায় পিছিয়েছে এইচএসসি পরীক্ষা  » «   নিজামীর ফাঁসির রায় বহাল রাখায় সিলেটে আনন্দ মিছিল  » «  

মুক্তি পেল শুভ-তিশার ‘অস্তিত্ব’

Untitled-1বিনোদন ডেস্ক ::
গত সপ্তাহের প্রায় প্রতিদিনই ঢাকার বিভিন্ন অফিস, বিপণিবিতান, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, বিনোদনকেন্দ্রগুলো চষে বেড়িয়েছেন অভিনয়শিল্পী আরিফিন শুভ ও নুসরাত ইমরোজ তিশা। রাস্তা কিংবা অফিসে হুট করেই দেখা হয়েছে এই দুজনের সঙ্গে। যাঁর সঙ্গে দেখা হয়েছে, তাঁর হাতেই তুলে দিয়েছেন অস্তিত্ব ছবির পোস্টার। অনন্য মামুন পরিচালিত ছবিটি মুক্তি পেল আজ শুক্রবার। ছবির প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন এই দুজন।

নুসরাত ইমরোজ তিশাএই দুই অভিনয়শিল্পীর ছবি আগেও মুক্তি পেয়েছে। কিন্তু এমনভাবে আগে তাঁদের ছবির প্রচারে নামতে দেখা যায়নি। এর পেছনে কারণ কী? কথা হলো শুভর সঙ্গে। তিনি বললেন, ‘এই ছবিটি আমার জন্য অনেক কারণে স্পেশাল। কাহিনি, গল্প, নির্মাণ, পুরো দল—সব দিক থেকে আলাদা। ছবিটির কাজ শেষ করে মনে হয়েছে জীবনের একটা সেরা অর্জন হলো। আর কেন এত প্রচারণা, সেই প্রশ্নের উত্তর ছবি মুক্তি পেলেই পেয়ে যাবেন। হলে গিয়ে দেখুন, নিজেই বুঝবেন, কেন চেয়েছি দর্শক হলে যাক।’

কোথায় কোথায় গেলেন? এ প্রশ্নের উত্তরে শুভ বললেন, ‘প্রশ্ন করেন, কোথায় যাইনি? পুরো ঢাকাই প্রায় ঘুরেছি। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস, ধানমন্ডি লেক, রবীন্দ্রসরোবর, সংসদ ভবন এলাকা, মতিঝিল—সব জায়গায় গিয়েছি। যাঁকে সামনে পেয়েছি, পোস্টার দিয়েছি। এই তালিকায় অফিসের নিরাপত্তাকর্মী থেকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক পর্যন্ত সবাই আছেন।’

অভিনয়শিল্পী তিশা বললেন, ‘আমি শুভর মতো অত জায়গায় যেতে পারিনি। তবে বিভিন্ন টিভি ও পত্রিকা অফিসে গিয়েছি সবার সঙ্গে। আমাদের কাছে মনে হয়েছে, সব সময় তো সাংবাদিকেরা আমাদের কাছে ছুটে আসেন। এবার আমরা যাই।’

ছবিটি সম্পর্কে তিশা বললেন, ‘দারুণ একটা কাজ হয়েছে। সবার এই ছবিটি দেখা উচিত।’

পরিচালক অনন্য মামুন বললেন, অভিনয়শিল্পীরা নিজেরা উদ্যোগী হয়ে ছবির প্রচারে অংশ নিয়েছেন। সানন্দে বিভিন্ন জায়গায় ছুটছেন। এটা সবার জন্য একটা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আজ প্রায় ৮০টি হলে মুক্তি পাচ্ছে ছবিটি।

সর্বশেষ সংবাদ