শনিবার, ২৫ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কল্যাণে আবদুর কাদের মোল্লার ঘোষণা



শাবি প্রতিনিধি ::
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কল্যাণে পাঁচটি বাস ও একটি মসজিদ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও থার্মেস গ্রুপের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক বিশিষ্ট শিল্পপতি আব্দুল কাদির মোল্লা।
বুধবার (২১ নভেম্বর) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট কক্ষে শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হয়ে তিনি শিক্ষকদের জন্য তিনটি উন্নতমানের এয়ার কন্ডিশনড মিনিবাসের বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেন।
এ দিকে, সন্ধ্যায় নরসিংদী স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের নবীনবরণ ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের জন্য আরও দুটো হিনো বাস বরাদ্দ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদ সম্প্রসারণে প্রয়োজনীয় অর্থ অনুদানের বিষয়েও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।
বুধবার বিকালে শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় আব্দুল কাদির মোল্লা বলেন, শিক্ষা ও গবেষণায় বাংলাদেশের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয় এটি। আমি এখানে গুণীজনদের মাঝে উপস্থিত হতে পেরে আমি আজ বড় গর্ববোধ করছি। বিশ্বায়নের এই যুগে কার্যকরী শিল্পায়নের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আমার শিল্প প্রতিষ্ঠানের সমঝোতা চুক্তি শিগগরই করা হবে। এ সময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য তিনটি এসি বাস, কেন্দ্রীয় মসজিদ সম্প্রসারণে প্রয়োজনীয় অর্থ অনুদানের প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
মতবিনিময়কালে শাবি উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বক্তব্যে বলেন, দেশের শিক্ষা খাতে আসলে কাদির মোল্লার অবদান সর্বজনবিদিত ও প্রশংসাযোগ্য। তার পক্ষ থেকে এ উপহার বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার সাদরে গ্রহণ করবে। মতবিনিময়কালে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক সৈয়দ হাসানুজ্জামান, বিভিন্ন অনুষদের ডিনবৃন্দসহ বিভিন্ন বিভাগের সিনিয়র অধ্যাপক উপস্থিত ছিলেন।
অন্যদিকে, সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনের গ্যালারি-১ এ নরসিংদী স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশস কর্তৃক নবীনবরণ ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আমি মানুষের জন্য কাজ করি, মানবতার সেবায় কাজ করি। দীর্ঘ ২৫ বছর কীভাবে মানুষের ভালো করা যায়, কীভাবে উন্নতি করা যায় সে চিন্তাই করি।
এ সময় তিনি আরও বলেন, একসময় আমার নিজের পড়াশোনার জন্য টাকা-পয়সা ছিল না, লেখাপড়া বন্ধ করতে হয়েছে। অনেক কষ্ট করে এ পর্যন্ত এসেছি। অর্থের অভাবে কারও শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাক, এটা আমি হতে দেব না।
এ সময় শাবিতে অবস্থানরত নরসিংদী জেলা থেকে আগত শিক্ষার্থীরা সিলেট থেকে নরসিংদী পর্যন্ত একটা বাসের দাবি জানালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে শিক্ষার্থীদের জন্য দুটো এসি বাস দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। তবে এই বাসটি নরসিংদী-শাবি ক্যাম্পাস যাতায়াত করবে।
তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যদি রাজি থাকে তাহলে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই বাস প্রদানের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।নরসিংদী জেলার দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন থেকে শাবি শিক্ষকের সুপারিশক্রমে বৃত্তি প্রদান করা হবে বলে জানান তিনি। এছাড়া শাবিতে অবস্থানরত নরসিংদী জেলা থেকে আগত শিক্ষার্থীদের যে কোনো প্রয়োজনে তার কাছে যাবার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।
নরসিংদী স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সজীবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও রাইতাহ বিনতে আহসান ও মোশাররফ হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- শাবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুল আলম, অধ্যাপক ড. আবু ইউসুফ, অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান খান, অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, আব্দুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ড. মশিউর রহমান মৃধা প্রমুখ।
এছাড়া অনুষ্ঠানে শাবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক মুহিবুল আলম, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আব্দুল মোমেন, সাবেক শিক্ষার্থী ও শাবি প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন খান রাসেল, সংগঠনের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে নরসিংদী জেলা থেকে আগত নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয়। এ সময় শাবিতে অধ্যয়নকারী নরসিংদী জেলার সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।