শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ওজন কমাতে ক্র্যাশ ডায়েট না ক্লিন ইটিং?



লাইফ স্টাইল ডেস্ক:: ওজন নিয়ে যারা সচেতন তারা এক সপ্তাহের ক্র্যাশ ডায়েট করে ওজন কমাতে চান। ক্র্যাশ ডায়েট দ্রুত ওজন কমালেও স্বাস্থ্যের জন্যে খুব একটা ভাল নয়। তাই এর বদলে অন্য একটি ডায়েটে ওজন কমাতে পারেন। তা হলো ক্লিন ইটিং। এটি শুধু ওজন কমাতে সাহায্য করে না, এর রয়েছে আরো নানা উপকারিতা।

ক্লিন ইটিং সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার পাশাপাশি ওজন কমাতেও সাহায্য করবে। ক্লিন ইটিং মানে যতটা সম্ভব প্রাকৃতিক খাবার খাওয়া। এক্ষেত্রে কম প্রক্রিয়াজাত, কম মসলার ব্যবহার হয়েছে এমন খাবারগুলোকেই তালিকাভুক্ত করা হয়।এ ধরনের খাবার হলো কাঁচা ফল, খুব সামান্য তেল মসলায় ভাপানো শাক সবজি, ডিম, বাদাম, একদম চর্বি ছাড়া মাংস এবং মাছ প্রভৃতি।

তাছাড়া শস্য জাতীয় খাবারও এর মধ্যে পড়ে। এই ডায়েটে লবণ ও চিনি প্রায় পুরোপুরি বাদ দিতে হবে। তবে একেবারেই খেতে না পারলে খুব সামান্য পরিমানে ব্যবহার করা যেতে পারে। আর প্রচুর পরিমানে আমিষ জাতীয় খাবার খেতে হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে, তা যেন তেল ও চর্বিমুক্ত হয়।

ক্লিন ইটিং ডায়েট অতিরিক্ত খেয়ে অলস হয়ে পড়া থেকে দূরে রাখে। যেমন সকালে এক পিস রুটি, ১ চামচ পিনাট বাটার আর কয়েক স্লাইস কলা, অথবা এক পিস রুটি এর উপর সেদ্ধ ডিম আর সামান্য লবণ আর গোলমরিচ। এই খাবার দুপুর পর্যন্ত আপনাকে এনার্জি দেবে।

ক্লিন ইটিং ধীরে ধীরে শরীর থেকে টক্সিন বের করে তাই ঘুম ভাল হয়। এই ধরনের ডায়েট আপনার মস্তিষ্ক ভাল রাখে।প্রোটিন সমৃদ্ধ চর্বি ছাড়া মাংস, মাছ, সবুজ শাক সবজি, ডিম বা পনির আপনাকে সারাদিন কাজে মনোযোগ ধরে রাখতে সাহায্য করবে।

এই ডায়েট এ যেহেতু তেল মসলার ব্যবহার খুব কম। তাই অনেক রোগের ঝুঁকি থেকেই এটি দূরে রাখবে। এই ডায়েট অনেকভাবেই আপনাকে উচ্চ রক্তচাপ বা ডায়াবেটিস এর ঝুঁকি থেকে বাঁচাবে।এই স্বাস্থ্যকর ডায়েট আপনার ত্বক গ্লো এবং চুল উজ্জ্বল করার পাশাপাশি ওজন কমাতেও সাহায্য করবে।