সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘ধর্ষিত’ তরুণীর সঙ্গে এ কেমন আচরণ! [ভিডিও]



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: রাতে রাস্তায় দিগ্‌বিদিক হয়ে ছুটছে এক তরুণী। শরীরে তার সাদা টপের সঙ্গে মেরুন স্কার্ট। তবে পোশাক এলোমেলা। তার চিৎকার শুনে জড়ো হয়ে গেলেন পথচারীরা। তরুণী জানালেন, তাকে ধর্ষণ করে তার সব কিছু কেড়ে নিয়ে পালিয়েছে এক যুবক। কিন্তু এই ঘটনা শোনার পর পথচলতি মানুষজন তাকে সাহায্যের হাত বাড়ানো কিংবা সহানুভূতি জানানোর বদলে উল্টে প্রশ্ন তুলে দিলেন তাঁর চরিত্র নিয়েই। কেউ বললেন, কল গার্ল। কেউ আবার প্রশ্ন করলেন, ড্রাগ নিয়েছেন কিনা। কারও বক্তব্য, এত ছোট পোশাক পরে রাতে ঘোরাফেরা করলে এই অবস্থার মুখোমুখি হওয়াটাই স্বাভাবিক।

এরই মধ্যে এক নারীও পর্যন্ত এক হাত নিলেন ওই তরুণীকে। বলেন, তাঁর বোন হলে নাকি এরকম পোশাক পরতে পারত না। অন্য এক জনের মন্তব্য, নির্ঘাত কল গার্ল, তাই তার সঙ্গে এমন কাণ্ড ঘটেছে। তবে এক ব্যক্তি একটি কোট ওই নারীর শরীরে জড়িয়ে দেন। তবে বেশিরভাগ খারাপ মন্তব্য করেছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে লেবাননের রাজধানী বৈরুতের রাস্তায়। সম্প্রতি এমনই একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিয়েছে লেবাননের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। তারপর থেকেই ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামে ভাইরাল হয়ে গেছে ভিডিওটি।

আসলে একটি ছিল একটি প্রচারের অংশ। মানাল নামে ওই তরুণী ধর্ষিতার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। যদিও পথচলতি মানুষের প্রতিক্রিয়া ছিল স্বাভাবিক। তাঁদের কেউ অভিনয়ের অংশ নয়। প্রচারের নাম ‘শেম অন হু’। সংস্থার উদ্দেশ্য, ধর্ষিতার প্রতি নয়, সমাজের ঘৃণা-বিদ্বেষ পোষণ করা উচিত ধর্ষকদের প্রতি। সেই প্রচারেরই অংশ এই ভিডিও।

(function(d, s, id) { var js, fjs = d.getElementsByTagName(s)[0]; if (d.getElementById(id)) return; js = d.createElement(s); js.id = id; js.src = ‘https://connect.facebook.net/de_DE/sdk.js#xfbml=1&version=v3.2’; fjs.parentNode.insertBefore(js, fjs);}(document, ‘script’, ‘facebook-jssdk’));

مين_الفِلتان؟#

شو صار بالشارع لمّا بنت تعرّضت للإغتصاب؟ #مين_الفِلتان؟What happens to a rape victim when she seeks help on the streets? #ShameOnWho #minelfeltenإن منظمة أبعاد تتحفّظ على كافة العبارات غير اللائقة الواردة في هذه التجربة الإجتماعية.ABAAD expresses its reservation on inappropriate terms and expressions mentioned in this social experiment.

Gepostet von Abaad am Montag, 5. November 2018