শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘কপাল’ খুলতে পারে এহিয়া-শাহিনের



নিউজ ডেস্ক:: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ ঐক্যফ্রন্ট থেকে বিজয়ী হয়েছেন গণফোরাম নেতা মুকাব্বির খান।উদীয়মান সূর্য প্রর্তীকে লড়াই করে তিনি বিজয় অর্জন করেন।এই আসনে মহাজোটের প্রার্থী ছিলেন বর্তমান সাংসদ ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়া।অপরদিকে মৌলভীবাজার-২ আসনে নির্বাচিত হয়েছেন ঐক্যফ্রন্ট মনোনিত প্রার্থী সুলতান মনসুর।এ আসনে মহাজোটের প্রার্থী ছিলেন এম এম শাহিন।

মোকাব্বির ও সুলতান মুনসুর বিজয়ী হলেও ঐক্যফ্রন্টের নির্দেশনা মোতাবেক তারা শপথ গ্রহণ করবেনা বলে বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে। তারা শপথ বাক্য পাঠ না করলে এ দুই আসন শূণ্য হয়ে যাবে। তাই শীঘ্রই সিলেট-২ ও মৌলভীবাজার-২ আসনে নতুন সংসদ সদস্য নির্বাচিত করতে হলে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতেই আবারো সংসদে যাওয়ার সুযোগ হতে পারে মহাজোটের প্রার্থী ও বর্তমান সাংসদ ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়ার ও এমএম শাহিনের।

এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের একাধিক নেতা বলেন, আমরা তো একাদশ নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছি। নতুন নির্বাচনের দাবি করেছি। ফলে সংসদে যোগ দেওয়ার প্রশ্নই আসে না।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সংসদে যাওয়া কিংবা শপথ নেওয়ার কোনও প্রশ্নই আসে না।একই কথা জানান দলের স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, দ্রুততম সময়ে নির্বাচনের দাবিতে আমরা মাঠে নামবো। এই নির্বাচনে যারা বিজয়ী হয়েছেন, তাদের এই শপথ নেওয়ার কোনও কারণ নেই।

শপথ গ্রহনের বিষয়ে জানতে চাইলে মৌলভীবাজার-২ আসনে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সুলতাম মনসুর আজকের সিলেটকে বলেন, আমি এখনো আমার নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করছি। শপথ গ্রহনের বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।

সিলেট-২ আসনে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য ও গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুকাব্বির খান আজকের সিলেটকে বলেন, আমি ঢাকা অবস্থান করছি। এখন পর্যন্ত শপথ অনুষ্টানে যাওয়ার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যে সিদ্ধান্ত দিবে এটাই হবে।