বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ইতালির অভিবাসী আইন মানবতাবিরোধী : ভেটিকান



প্রবাস ডেস্ক:: চলমান ইতালির অভিবাসী ও নিরাপত্তা আইনের বিরুদ্ধে ক্যাথলিকদের তীর্থদেশ ভেটিকানের একজন প্রতিনিধি মুখ খুললেন। ইতালির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনির নিরাপত্তা আইনের বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করেছেন ভেটিকান সিটি। স্থানীয় সংবাদ সূত্রে জানা যায়, বিপদগ্রস্ত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসা অপরাধ এমন আইনকে ভেটিকান মানবতাবিরোধী বলে মনে করে।

তিনি ভেটিকান নিয়ন্ত্রিত সব গির্জা আশ্রমকে নির্দেশ দিয়েছেন, মানবতার সাহায্যে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে। পাশাপাশি ইতালি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান, গীর্জার মানবিক কর্মকে আইনের বিরুদ্ধ বিবেচনা না করতে।

রোববারের ধর্মীয় ভাষণে পোপ ফ্রানসিকোও মানবতার সেবায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভিডিও বার্তায় বলেছেন, অনেক সাংবাদিক আমাকে প্রশ্ন করে কতজন অনুপ্রবেশকারী অভিবাসীকে ইতালিতে থাকার অনুমতি দেয়া যেতে পারে। উত্তরে তিনি শূন্য বললেন।

ইতালি আর কোনো অভিবাসীকে জায়গা দিতে রাজি নয়। তিনি বলেন, মায়াকান্না না করে জার্মান এবং হল্যান্ডের উচিত তাদের দেশের দরজা খুলে দেয়া।

উল্লেখ্য, ইতালিতে অভিবাসী আইন কার্যকর ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে গত ২৪ সেপ্টেম্বর। পরে রাষ্ট্রপতি সেরজো মাতারেল্লা সই দেয়ার পর কার্যকর করা হয়।

আইনটি অনুমোদন হওয়ায় বিভিন্ন দেশের অভিবাসীরা চরম বিপাকে পড়তে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ আইনে সন্ত্রাসবাদ যৌন হয়রানি, মানবপাচার ও মাদক চক্রের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া যে কোন ছোট অপরাধের কারণে বৈধতা হারাতে পারেন অভিবাসীরা। বেশ কয়েক বছর যাবৎ ইতালিতে অভিবাসী সমস্যা চলছে। চলমান এ অভিবাসী সমস্যা সমাধান করতে বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনি বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন। তাই অভিবাসীদের নতুন আইনের আওতায় এনে অপরাধ কমানোর চেষ্টা চলছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এই সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে আইন প্রণয়ন করে ইতালির সকল রোম ক্যাম্প বন্ধ করা। ব্যক্তি ও আন্তর্জাতিক সম্মেলনের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা।