রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জগন্নাথপুরের নির্মাণ হচ্ছে ব্রিটিশ-বাংলা এডুকেশন সেন্টার



নিজস্ব প্রতিবেদক ::
বাংলাদেশ সরকারের অনুদানে জগন্নাথপুর উপজেলা সদরের হবিবনগরে নির্মাণ করা হচ্ছে ‘ব্রিটিশ-বাংলা এডুকেশন সেন্টার’। জগন্নাথপুর ব্রিটিশ-বাংলা এডুকেশন ট্রাস্ট এর উদ্যোগে সেন্টারটি নির্মিত হচ্ছে। সোমবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন ট্রাস্টের ফাউন্ডার সেক্রেটারী মহিব চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, ১৪ শতক ভূমির উপর সেন্টারটি হবে ৩ তলা বিশিষ্ট। তবে আপাতত পাইলিংসহ একতলার পুরো কাজ ৬ মাসের মধ্যেই সম্পন্ন করা হবে। সেন্টারটি নির্মাণে মোট ব্যয় হবে প্রায় ৪ কোটি টাকার উর্দ্ধে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সরকার ট্রাস্টকে ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছে। সরকার আরো ২ কোটি টাকা অনুদান দেবে বলে আশ্বস্ত করা হয়েছে। সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ্ব এম.এ মান্নান বিগত মেয়াদে এই প্রকল্পটি অনুমোদন করেন। ট্রাস্ট নেতৃবৃন্দ এম.এ মান্নানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

মহিব চৌধুরী আরো জানান, জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকৌশল অফিসের তত্বাবধানে প্রকল্পটি শুরু করা হচ্ছে। প্রকল্পটি সম্পন্ন করার জন্য ট্রাস্ট একটি ভবন নির্মাণ কমিটি করেছে। কমিটিতে রয়েছেন মহিব চৌধুরী, আশিক চৌধুরী, নুরুল হক লালা মিয়া, মুজিবুর রহমান মুজিব ও হাসনাত আহমদ চুনু। আগামী ১৬ জানুয়ারি বুধবার আনুষ্ঠানিক ভাবে এডুকেশন সেন্টার এর নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে । এই এডুকেশন সেন্টারে আধুনিক প্রযুক্তিসহ অত্যাধুনিক লাইব্রেরী থাকবে। থাকবে প্রশিক্ষণ সেন্টার ও শিক্ষা বিষয়ক পরামর্শ কেন্দ্র। পরবর্তীতে শিক্ষার উন্নয়নে আরো নানা বিষয় চালু করা হবে। জগন্নাথপুর ব্রিটিশ-বাংলা এডুকেশন ট্রাস্ট ২০০১ সালে প্রথম বারের মতো বৃত্তি বিতরণ শুরু করে। এ পর্যন্ত গত ১৮ বছরে প্রায় ২০ হাজার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করেছে ট্রাস্ট।

তিনি বলেন, আমাদের বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশ-বিদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে অধ্যয়ন করছে। যা নিঃসন্দেহে আমাদের জন্যে গৌরবের। বর্তমানে এই ট্রাস্টের ট্রাস্টী সংখ্যা ১৫৩ জন। বর্তমানে ট্রাস্টের ফান্ডে প্রায় ৪ কোটি টাকা জমা রয়েছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ও সহযোগিতায় শিক্ষার প্রসারে ট্রাস্টকে আমরা আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ট্রাস্টের ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট আলহাজ এম এ আহাদ, বর্তমান প্রেসিডেন্ট আশিক চৌধুরী, ফাউন্ডার ট্রাস্টী নুরুল হক লালা মিয়া ও ট্রাস্টী মোবারক আলী।