রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রথম জয়ের দেখা পেলেন মাহমুদউল্লাহ



স্পোর্টস ডেস্ক:: টানা চার ম্যাচ হারের পর অবশেষে চলতি বিপিএলের ৬ষ্ঠ আসরে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের খুলনা টাইটান্স। কম স্কোর করেও এমন জয়ে আবশেষে বিশাল চাপের বোঝা নামল মাহমুদউল্লাহর কাঁধ ধেকে। আজ মেহেদী মিরাজের রাজশাহী কিংসকে ২৫ রানে হারিয়েছে খুলনা। এই জয়ের পরেও কিন্তু দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে মাহমুদুউল্লাহ রিয়াদের দলের সামনে কঠিন পথ পাড়ি দিতে হবে।

ছোট টার্গেট তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে রাজশাহী কিংস। ৪৭ রানের মধ্যে তাদের ৫ ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরে যায়। বিশেষ করে তাইজুল ইসলাম এবং অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর বোলিং সামলাতে বেগ পেতে হয় কিংসদের।জুনায়েদ খানের বলে ইভান্সের (০) বিদায় দিয়ে শুরু হয়। মাহমুদউল্লাহর প্রথম শিকার ৭ রান করা মুমিনুল হক। দ্বিতীয় শিকার জাকির হাসান (৭।। তিন নম্বরে নামা কিংস অধিনায়ক মিরাজ ১৬ বলে ২৩ রান করে তাইজুলের বলে আরিফুলের তালুবন্দি হন। সৌম্য সরকার যথারীতি ব্যর্থ। তাইজুলের বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে করেন ২ রান।

টেন ডয়েসচেটকে (৭) জহুরুলের তালুবন্দি করে তৃতীয় শিকার ধরেন তাইজুল। জংকার (১৫) এবং উদানা (৬) যথাক্রমে জুনায়েদ এবং ওয়েইজের শিকার হন। খুলনার প্রথম জয় ছিল তখন কেবলই সময়ের ব্যাপার মাত্র। শেষ ওভারে রান-আউট হয়ে যান ১ ছক্কায় ১৩ রান করা কামরুল ইসলাম রাব্বি। এক বল পরেই ক্যাচ তুলে দেন আরাফাত সানি (১৫)। ১৯.৫ ওভারে ১০৩ রানে অল-আউট হয় রাজশাহী কিংস। ২৫ রানের জয় তুলে নেয় খুলনা টাইটান্স। বল হাতে ৩ উইকেট নিয়েছেন জুনায়েদ খান।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৮ রান সংগ্রহ করে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। ৬ বলে ১৩ করা জহুরুল উদানার বলে আরাফাত সানির তালুবন্দি হলে ভাঙে ১৫ রানের ওপেনিং জুটি। অপর ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকীকে (১৪) সরাসরি বোল্ড করে দেন রাজশাহী অধিনায়ক মেহেদী মিরাজ। ২১ বলে ১৫ রানের ধীরগতির ইনিংস খেলে মিরাজের দ্বিতীয় শিকার হন ডেভিড মালান।

ব্যাট হাতে ব্যর্থতার ঘানি টেনেই যাচ্ছেন খুলনা অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আরাফাত সানির শিকার হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ৯ বলে ১০ রান। নাজমুল হোসেন শান্ত ১১ রান করে রান-আউট হয়ে যান। ৮ রান করে ক্যারিবীয় তারকা ব্র্যাথওয়েট এলবিডাব্লিউ হয়ে যান আরাফাত সানির বলে। উদানার দ্বিতীয় শিকার হন ডেভিড ওয়েইজ (১৩)। আরিফুল হকের ২৭ বলে ২৬ রানের ইনিংসে একশ পার করে খুলনা। এটাই খুলনার সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান। নির্ধারিত ২০ ওভারে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৯ উইকেটে ১২৮ রান।