বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সন্তানের জন্য ওষুধ-আইসক্রিম আনতে গিয়ে আর ফিরলেন না মা



নিউজ ডেস্ক:: মায়ের জন্য সব সময়ই আকুল থাকে শিশু সন্তানরা। একটু চোখের আড়াল হলেই মায়ের জন্য ব্যাকুল হয়ে যায় শিশুরা। আবার যখন মাকে কাছে পায়, মুহূর্তেই আনন্দচিত্তে মায়ের কাছে ছুটে যায় তারা।এটাই স্বাভাবিক।

কিন্তু এটাই যখন অস্বাভাবিক হয়ে যায়, মাকে বারবার ফিরে চেয়েও তার কোনো সাড়া পায় না, তখন শিশু হৃদয় ডুকরে কেঁদে উঠে। আর তার বুক ভাঙা কান্না ভারি করে তোলে সেখানকার পরিবেশ। তার কান্না বুক ভাসায় অন্যসব কাছের মানুষের।

এমন ঘটনাই ঘটেছে শিশু সানেনের জীবনে। পাঁচ বছরের সানেন শুধুই মাকে ডাকছেন। কিন্তু মা আর ফিরে আসছেন না।এতে হৃদয় ভেঙে চুরমার হয়ে যাচ্ছে সানেনের। বৃহস্পতিবার রাতে, চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার কিছুক্ষণ আগে সানেনের মা শিলা বাড়ির বাইরে বের হয়েছিলেন তার পাঁচ মাস বয়সী শিশু সন্তান সামিনের জন্য ওষুধ আনতে। ফেরার পথে সানেনের জন্য আইসক্রিম আনবে বলে কথা দিয়েছিলেন এই মা। কিন্তু মা আর ফিরে আসছেন না।

যত সময় গড়াচ্ছে তার আদরের মামনি শিলা কেন আসছেন না এই আকুলতায় ব্যাকুল হচ্ছে এই অবুঝ শিশুটি।এখন মায়ের খোঁজে ডিএনএ’র নমুনা হিসেবে এই শিশু সন্তানের রক্ত ও লালা সংগ্রহ করেছে সিআইডির ফরেনসিক ডিএনএ ল্যাব।

চকবাজারের চুরিহাট্টায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পরিচয় না পাওয়া অজ্ঞাত ২১টি মরদেহের পরিচয় সনাক্তে ২০ জন দাবিদার স্বজনদের ডিএনএ’র নমুনা সংগ্রহ করেছে সিআইডি’র ফরেনসিক ল্যাব।ঢাকার জেলা প্রশাসন সূত্র বলছে, এখনও পর্যন্ত দাবিদার ১৬টি পরিবারের মা-বাবা-ভাই-সন্তানসহ নিকট স্বজনদের রক্তের নমুনা নেওয়া হয়েছে। অজ্ঞাতদের সনাক্ত না হওয়া পর্যন্ত দাবিদার স্বজনদের নমুনা সংগ্রহ করবে সিআইডি।

ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পরই হস্তান্তর করা হবে এই মরদেহগুলো। এর মধ্যে হয়তো শিশু সানেনের মা শিলাও থাকতে পারে!এমনটি হলে হয়তো আর কখনোই মায়ের মুখ দেখতে পাবে না সানেন। খুশি হয়ে দৌঁড়ে গিয়ে মাকে আর জড়িয়ে ধরাও হবে না তার।