সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-সিলেট রেল রুটে টিকিট কিনতে লাগবে জাতীয় পরিচয়পত্র



ডেইলি সিলেট ডেস্ক :: টিকিট কালোবাজারি রোধে প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকা-সিলেট রুটে ট্রেনের টিকিট জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া মিলবে না। আগামী ২০ মার্চ থেকে শুরু হওয়া নতুন নিয়মে ট্রেনের টিকিট ১০ দিন আগে থেকেই অর্থাৎ ১১ মার্চ থেকেই কিনতে লাগবে জাতীয় পরিচয়পত্র।

ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের আন্তঃনগর সোনার বাংলা ট্রেনের টিকিট সংগ্রহে পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক করার পর এবার ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ও রুটের আরও পাঁচটি ট্রেনে এ পদ্ধতি বাধ্যতামূলক করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

আগামী ২০ মার্চ থেকে এটি চালু হবে। ফলে ১১ মার্চ থেকেই পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে যাত্রীদের। কারণ বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী যাত্রার ১০ দিন আগে ওই দিনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়। এখন থেকে ঢাকা-সিলেট রুটে শুধুমাত্র পারাবত এক্সপ্রেস ও ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সুবর্ণ এক্সপ্রেস, মহানগর প্রভাতী, মহানগর গোধূলী, তুর্ণানিশিথা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রীদের পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকিট নিতে হবে।

এ-সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ রেলওয়ে এরই মধ্যে জারি করেছে। একই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব শাখায় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা সরদার শাহাদাত আলী বলেন, যিনি ভ্রমণ করবেন, তার আইডি দিয়ে টিকিট নিতে হবে। নিজ নামে সংগৃহীত টিকিটে ভ্রমণ করছে কি না তা-ও যাচাই করা হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েবসাইট, ই-টিকেটিং ওয়েবসাইট, রেলওয়ের মোবাইল অ্যাপস ও স্টেশন কাউন্টারে জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মনিবন্ধন সনদ দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। কিন্তু ট্রেনে যাত্রীদের মূল টিকিট দেখাতে হবে। কোনোভাবেই ফটোকপি গ্রহণযোগ্য হবে না। ই-টিকিটের ক্ষেত্রে নিজস্ব আইডিতে সংগৃহীত টিকিটের প্রিন্ট কপি ছবিসহ পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এমনকি অপরের আইডিতে ক্রয়কৃত টিকিটের ক্ষেত্রে ট্রেন ছাড়ার পূর্বে স্টেশন থেকে মূল টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। কোনো অবস্থাতেই মোবাইল ফোনে এসএমএস প্রদর্শন করে ট্রেনে ভ্রমণ করা যাইবে না বলে জানান তিনি।