রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শেখ হাসিনার মননে দেশকে সুখি সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত করার স্বপ্ন – প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ



সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ বলেছেন,বাংলাদেশ আজ বিভিন্ন ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চিন্তা ও মননে বাংলাদেশকে সুখি সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত করার স্বপ্ন। যার জন্য বাংলাদেশ আজ বিশ্বের দরবারে মাথা উচুঁ করে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন কাউকে পিছিয়ে রেখে দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষনে জাতিকে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার যে দিক নির্দেশনা দেয়া হয় সে জন্যই জাতি রচনা করেছিল দেশ স্বাধীনের স্বর্ণালী অধ্যায়। তিনি বলেন,প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার নেতৃত্বে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয় সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। সরকারী শিশু পরিবারে বসবাস করে যারা লেখাপড়া করছে তাদের তাদের উপযুক্ত শিক্ষা নিয়ে নিজেকে যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। সরকারি সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করে নিজের পায়ে দাঁড়াতে না পারলে ভবিষ্যতে উন্নতি করা যাবে না। এজন্য মনোযোগ দিয়ে লেখাপড়া করতে হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ঐক্যবদ্ধভাবে দেশকে গড়ে তুলতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।
তিনি বুধবার বিকেলে সিলেট বাগবাড়িস্থ সমাজসেবা কমপ্লেক্সে দিনব্যাপী সমাজসেবা অধিদফতরের অধীনে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিবাসীদের অংশগ্রহণে বিভাগীয় পর্যায়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানসহ পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য একথা বলেন।

সিলেট জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) গাজী মোহাম্মদ নূরুল কবীর, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি অব পুলিশ মো. কামরুল আহসান বিপিএম (বার) এবং বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক সৈয়দা ফেরদাউস আক্তার, জাতীয় সমাজ কল্যাণ পরিষদ ঢাকার নির্বাহী সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা। পরে তিনি চার জেলার নিবাসীদের মধ্যে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করেন।

পরে বেতার ও টেলিভিশনের বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী তন্বী দেব এর পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
সমাজসেবা অফিসার মো: লুৎফুর রহমান ও অনুষ্ঠান ঘোষিকা নাজমা পারভিনের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক নিবাস রঞ্জন দাশ, বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো: আব্দুল রফিক, হবিগঞ্জ জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক হাবিবুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো: আদিল মোত্তাকীন, সুনামগঞ্জ জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক মো: ইব্রাহিম আল মামুন মোল্লা প্রমুখ।

এর আগে বুধবার সকাল ১০টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক সৈয়দা ফেরদাউস আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় কমিশনার মৃনাল কান্তি দেব। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের কার্যকরী সদস্য ও বেগম রোকেয়া পদকপ্রাপ্ত সাবেক এমপি সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবীর,সিলেট জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার সুব্রত চক্রবর্তী,মহানগর ইউনিটের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল খালিক।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ পরিচালক মোঃ আব্দুর রফিক। শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন শিক্ষক মাসুক আলম,পবিত্র গীতাপাঠ করেন মুক্তিযোদ্ধা বিবেকান্দ সমাজপতি,পবিত্র ত্রিপিটক পাঠ করেন শ্রীমৎ আত্মদীপ ভিক্ষু, পবিত্র বাইবেল পাঠ করেন ফাদার ভিকন নিঝুম সাংমা ।

উপস্থিত ছিলেন-সিলেট জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক নিবাস রঞ্জন দাশ, হবিগঞ্জ জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক হাবিবুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক আদিল মোত্তাকীন, সুনামগঞ্জ জেলা সমাজসেবা সমাজসেবা কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপ পরিচালক মোঃ ইব্রাহিম আল মামুন মোল্লা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, সিনিয়র সাংবাদিক হাজী এম আহমদ আলী, রহমানিয়া প্রতিবন্ধী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি আলহাজ্ব আতাউর রহমান খান সামছু, জৈন্তাপুর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার এ কে আজাদ ভূইয়া, প্রবেশন অফিসার তমির হোসেন চৌধুরী, সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার ফারহানা নাসরিন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আব্দুল মুন্তাকিন, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আবু সাঈদ মিয়া, ওসমানী হাসপাতাল সমাজসেবা অফিসার তানজিলা তাসনিম, খলিলুর রহমান, গোলাপগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা অফিসার নুরুল হক, রায়নগর শিশু পরিবারের তত্বাবধায় জাহানারা বেগম, সমাজসেবা অফিসার জয়ন্তি দত্ত, শাহজালাল রাগীব-রাবেয়া প্রতিবন্ধী ইনস্টিটিউটের প্রিন্সিপাল শামীমা নাছরিন পপি। সকালে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা ও অলিম্পিক পতাকা উত্তোলন এবং কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহন করেন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেটের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় কমিশনার মৃনাল কান্তি দেব। অনুষ্ঠানে সিলেট বিভাগের জেলা, উপজেলা হাসপাতাল, শিশু পরিবার, পূণর্বাসন কেন্দ্রের কর্মকর্তা,কর্মচারী ও নিবাসীরা অংশ নেন। বিকেলে প্রতিমন্ত্রী হযরত শাহ পরান (রহঃ)এর মাজার জেয়ারত করেন । পরে তিনি সমাজ কল্যাণ কমপ্লেক্সের নিবাসীদের সাথ কুশল বিনিময় করেন। এছাড়া তিনি খাদিম পাড়াস্থ শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। – বিজ্ঞপ্তি