বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আম্বরখানায় তিনমুখী ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনায় ড. মোমেন



নিউজ ডেস্ক:: সিলেট নগরের যানজট নিরসনে চারলেন ও ছয়লেন সড়কের পাশাপাশি ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেছেন, নগরের আম্বরখানায় তিনমুখী ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে আমার। এতে করে যানজট কমে আসবে।

সিলেট নগরের যানজট একটি বড় সমস্যা। বিশেষ করে সন্ধ্যার পর ট্রাক ঢুকে পড়ায় এ সমস্যা আরো প্রকট হয়। দুর্ঘটনার আশংকা বেড়ে যায়। নগরবাসী এই প্রতিকার চেয়ে বিভিন্ন সময় আন্দোলনও করেছেন।

এ প্রসঙ্গে ড. মোমেন বলেন, যানজট নিরসনে আমাদের অনেক পরিকল্পনা আছে। দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনার মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে ফ্লাইওভার নির্মাণ। এটি হবে নগরের আম্বরখানায়। তিনমুখী ফ্লাইওভারের একদিক যাবে সাপ্লাই-শাহী ঈদগাহের দিকে, একদিক যাবে সুবিদবাজার-মদিনা মার্কেট এবং আরেক দিক হবে সোজা দরগাহ-চৌহাট্টা। এই তিনদিকে ফ্লাইওভার হয়ে গেলে যানজট অনেকাংশে হ্রাস পাবে বলে আশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

যানজট নিরসনকল্পে ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমার বড় ভাই, সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এই যানজট নিরসনের জন্য অনেক চেষ্টা করে গেছেন। আমি তখন মন্ত্রী না হলেও বড় ভাইয়ের সুবাদে উন্নয়ন কাজের জন্য কিছু তদবির করেছি। এখন নিজে মন্ত্রী হয়েছি, সেগুলো বাস্তবায়নের দ্রুত পদক্ষেপ নেবো।

তিনি বলেন, বিমানবন্দর থেকে বাদাঘাট বাইপাস নির্মাণে ডিপিপি হয়ে গেছে। আম্বরখানা চৌকিদেখি সড়ক চারলেন এবং বিমানবন্দর-বাদাঘাট বাইপাস ছয় লেন সড়ক নির্মাণ হবে।এ দু’টি প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়ে গেলে নগরের আম্বরখানা, সাপ্লাই, সুবিদবাজার, পাঠানটুলাসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকার মানুষের কষ্ট লাঘব হবে বলে মনে করেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশে উন্নয়ন কাজ অত্যন্ত ধীরগতিতে হয় জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রচেষ্টা থাকবে যাতে কাজ দ্রুত তরান্বিত করতে পারি। এক্ষেত্রে নগরবাসীরও সহযোগিতা প্রয়োজন।উন্নয়ন কাজের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়ে তিনি বলেন, এই পাঁচবছরে আমাদের সফলকাম হতেই হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। এজন্য সিলেট অঞ্চল থেকে পাঁচজন মন্ত্রী দিয়েছেন, একজন উপদেষ্ঠা দিয়েছেন। সে সুযোগ কাজে লাগাতে হবে।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী রিতেশ বড়ুয়া বলেন, বাদাঘাট-বিমানবন্দর ছয়লেন বাইপাস সড়ক নির্মাণের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের বলা হয়েছে। তবে, ফ্লাইওভার নির্মাণের বিষয়টি আমার জানা নেই। বাইপাস সড়ক হয়ে গেলে যানজট অনেকটা নিয়ন্ত্রিত হবে বলে জানান তিনি। এতে করে যানজট নিরসনে ফ্লাইওভার নির্মাণের প্রয়োজন হবে না।