বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ছুটি শেষের আগেই কাজে যোগ দিলেন অভিনন্দন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: চার সপ্তাহের ছুটি থাকলেও মাত্র ১২ দিনের মাথায় নিজের কর্মস্থল শ্রীনগরে ফিরলেন অভিনন্দন বর্তমান। ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের মাটিতে আটক হওয়ার দু’দিন পের ভারতে ফিরে আসেন এই ভারতীয় বিমান বাহিনীর উইং কমান্ডার।

দেশে ফেরার পর প্রথমে তার শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। তারপর চলে বিভিন্ন নিরাপত্তা সংস্থার প্রশ্নোত্তর পর্ব। সবকিছু শেষ করে পাকিস্তান থেকে ফেরার প্রায় দু’সপ্তাহ পর চার সপ্তাহের জন্য অসুস্থতাজনিত ছুটিতে পাঠানো হয় তাকে।

কিন্তু, দ্রুত যুদ্ধবিমানের ককপিটে বসার তাড়নায় ১২ দিনের মাথায় শ্রীনগরে নিজের পুরনো স্কোয়াড্রনে যোগ দিলেন অভিনন্দন। চেন্নাইয়ে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটানোর বদলে দেশরক্ষার কাজে নিজেকে পুনরায় নিয়োজিত করলেন।

যদিও একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে তার ফিটনেস পরীক্ষা নেওয়া হবে। তারপর সেই রিপোর্ট দেখে ভারতীয় বিমান বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা সিদ্ধান্ত নেবেন যে, অভিনন্দনকে তার পুরনো জায়গা ফিরিয়ে দেওয়া হবে কি না।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামার অবন্তীপোরায় সিআরপিএফ কনভয়ের উপর আত্মঘাতী হামলা চালায় জয়েশ-ই-মোহাম্মদ জঙ্গিরা। ওই হামলায় ৪৯ সেনা নিহত হয়। ওই হামলার জবাব দিতে ঠিক ১২ দিনের মাথায় পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বালাকোটে থাকা জইশ ঘাঁটিতে এয়ারস্ট্রাইক চালায় ভারতীয় বিমান বাহিনী।

আর তার ঠিক পরেরদিনই ভারতের আকাশসীমা লঙ্ঘন করে ভেতরে ঢুকে হামলা চালানোর চেষ্টা করে পাকিস্তানের কয়েকটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান। তাদের তাড়া করতে গিয়ে একটিকে গুলি করে ধ্বংসের পর পাক-অধিকৃত কাশ্মিরে ভেঙে পড়ে ভারতীয় বিমান বাহিনীর একটি মিগ-২১ বিমান।

এরপরই পাক সেনাদের হাতে আটক হন ওই বিমানটির পাইলট উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। ভারতের পক্ষ থেকে জেনেভা চুক্তি মেনে সঙ্গে সঙ্গে তাকে ছেড়ে দেওয়ার দাবি জানানো হয় পাকিস্তানের কাছে। তারপরেই অভিনন্দনকে ছেড়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করে ইমরানের সরকার এবং তাকে ভারতের কাছে হস্তান্তর করা হয়।