বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বনানীর অগ্নিকান্ডে কমলগঞ্জের আমেনা ইয়াসমীন নিহত, গ্রামের বাড়িতে শোকের মাতম



কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:: রাজধানী ঢাকার বনানির ২২তলা বিশিষ্ট এফ আর টাওয়ারের অগ্নিকান্ডের সময় সিঁড়ি দিয়ে নামতে গিয়ে শ্বাসরারুদ্ধ হয়ে মারা গেছেন কমলগঞ্জ উপজেলার রামপাশা গ্রামের সৈয়দ বাড়ির মেয়ে সৈয়দা আমেনা ইয়াসমীন (৫০)। তিনি সে ভবনের ৭ম তলায় শ্রীলঙ্কান একটি কোম্পানীতে প্রশাসনিক কর্মকর্তা ছিলেন। তার মৃত্যুর খবরে গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।
কমলগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের সৈয়দ বাড়ির সন্তান সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন সৈয়দ মহিউদ্দীন আহমদের বড় মেয়ে সৈয়দা আমেনা ইয়াসমীন । তারা দুই বোন ও এক ভাই। বড়বোন বর্তমানে ষৈয়দা আমেনা তাসনিম অর্থমন্ত্রণালয়ে প্রশাসনিক পদে কর্মরত রয়েছেন। ভাই সৈয়দ মোস্তফা মাহমুদ আহমদ চট্রগ্রামে অডিট বিভাগে প্রশাসনিক পদে কর্মরত। তিন ভাই বোনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেছেন।
দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তাদের গ্রামের বাড়িতে শোকের মাতম শুরু হয়। গ্রামের বাড়িতে ছোট চাচা সৈয়দ সালেহ আহমদ পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করেন। সৈয়দা আমেনা ইয়াসমীন অবিবাহিত। তিনি ঢাকার সেনানিবাস এলাকার কাফরুলে মা-বাবার সাথে বসবাস করতেন।
শুক্রবার সকালে সৈয়দা আমেনা ইয়সমীনের চাচা সৈয়দ সালেহ আহমদ জানান, তাদের পরিবারের সবাই শুধুমাত্র ঈদের সময় বা কোন পারিবারিক অনুষ্ঠান হলে গ্রামের বাড়ি আসতেন। লাশ উদ্ধারের পর তার বাবা মৃত্যুর কথা জানিয়ে বলেন, তাকে বনানী করস্থানে দাফন করা হয়েছে। অগ্নিকান্ডের সময় আমেনা ইয়াসমীন বাঁচার জন্য সিঁড়ি দিয়ে নামার চেষ্টাকালে ধোয়ায় শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা যান বলে তার চাচা জানান।