বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এ মাসেই বন্ধ হতে পারে ২৫ লাখ মোবাইল সংযোগ



নিউজ ডেস্ক:: চলতি এপ্রিলেই বন্ধ হতে পারে প্রায় ২৫ লাখ মোবাইল সংযোগ। গত সপ্তাহে টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির সঙ্গে মোবাইল অপারেটরদের বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যেই আরও একটি সভার মাধ্যমে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বৈঠক সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, নিয়ম অনুযায়ী একজন গ্রাহক একটি জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে সর্বোচ্চ ১৫টি সিমকার্ড নিবন্ধন করতে পারেন। তবে বিটিআরসির অনুসন্ধানে এ নিয়মের ব্যত্যয় ঘটার তথ্য পাওয়া গেছে। নিয়মবহির্ভূতভাবে ১৫টির অতিরিক্ত নিবন্ধিত প্রায় ২৫ লাখ সিমকার্ডের খোঁজ পেয়েছে বিটিআরসি। বিটিআরসির সঙ্গে বিভিন্ন মোবাইল অপারেটরের সভায় এসব সিমকার্ড বন্ধের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

আলোচনায় বিটিআরসির পক্ষ থেকে জানানো হয়, নিয়ম অনুযায়ী একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে ১৫টির বেশি সিমকার্ড থাকলে অতিরিক্ত সিমকার্ডগুলো বন্ধ হয়ে যাবে। এপ্রিলের মধ্যেই বিটিআরসি এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে চায়। এর বিপরীতে মোবাইল অপারেটররা তাদের অবস্থান তুলে ধরে জানায়, যেসব গ্রাহকের অতিরিক্ত নিবন্ধিত সিমকার্ড আছে তার অধিকাংশই ব্যবহার হয় না। ফলে এগুলো বন্ধ করলে মোবাইল অপারেটরদের আপত্তি থাকবে না। তবে মোবাইল অপারেটররা যেসব সংযোগ থেকে রাজস্ব আয় বেশি, সেগুলো সচল রেখে কম আয়ের সংযোগ বন্ধ করার সুবিধা চায়। সূত্র জানায়, এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য কয়েক দিনের মধ্যে আরও একটি বৈঠক হবে।

এ ব্যাপারে বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক বলেন, আরও প্রায় দুই বছর আগেই একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে সর্বোচ্চ ১৫টি সিমকার্ড নিবন্ধনের সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এ সীমার বেশি নিবন্ধন থাকলে অবশ্যই সেই সিমকার্ডগুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে।