মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কিন আর মানবতা যেন এক সুতোয় গাঁথা



শাবি প্রতিনিধি ::

বছর ঘুরে আবার এসেছে বৈশাখ। তাকে বরণ করার জন্যে প্রতিটি বাঙ্গালির ছিল বিপুল আয়োজন। বাকি ছিলো না শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবি) ক্যাম্পাস। কিন্তু এতো আয়োজনের মাধ্যমে মানুষের জন্য যে কিছু করা যায় তার যেন এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত শাবির স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কিন। বরাবরের মতো নববর্ষের এই আয়োজনে শাবির স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কিন বর্ষবরণ ১৪২৬ উদযাপন উপলক্ষে করেছিলো বর্ণাঢ্য আয়োজন। এ আয়োজন থেকে অর্জিত অর্থ ব্যয় হবে কিন স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য।

১লা বৈশাখ উদযাপন বা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে কিন পরিবারের পক্ষ থেকে শাবির অর্জুন তলায় বসেছিল স্টল। কিনের স্টলে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ছিলো বিচিত্র সকল আয়োজন। হরেক রকমের পিঠার সমাহার, ছিল বাহারি ডিজাইনের আল্পনা আঁকারও আয়োজন।

এছাড়াও বৈশাখের আগে চৈত্রের শেষের ২ দিন মেয়েদের হলে ছিলো মেহেদী উৎসব। কিন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, কিনের এই বর্ণাঢ্য উৎসব ও আনন্দের মাঝে তাদের চেষ্টা ছিলো মানুষের জন্যে কিছু করার।

প্রতি বছর বৈশাখের পুরো আয়োজন থেকে যে অর্থ আসে তা জমা হয় কিনের স্কুল তহবিলে। আর তাদের এই জমানো তহবিল থেকে কিন স্কুলের শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই, খাতা, কলম, পেন্সিল এবং প্রয়োজনভেদে তাদের স্কুলের বেতনও দেওয়া হয়। তহবিলের অর্থ কিন স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনে খরচ করা হবে।

শাবি ক্যাম্পাসে কিন যে এক ব্যতিক্রমী সংগঠন তারই সাক্ষ্য বৈশাখের এ আয়োজন। আনন্দ উচ্ছ্বাসের মাঝে মানুষের জন্য কাজ করায় থেমে নেই তাদের প্রচেষ্টা। শীতবস্ত্র থেকে পথশিশু কিংবা মুমূর্ষু রোগীর জন্য রক্ত সংগ্রহের মত প্রতিনিয়ত মানুষের জন্য কাজ করছে কিন। শাবিতে কিন আর মানবতা যেন এক সুতোয় গাঁথা দুটি শব্দ।