সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

তাহিরপুরে এসি ল্যান্ডের কান্ড : দখলদারীত্ব ভূমি থেকে জোরপূর্বক উচ্ছেদ



সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ::
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় আ,লীগ নেতার বৈধ দখলদারীত্ব ভূমি থেকে জোরপূর্বক উচ্ছেদ করে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন সদ্য যোগদানকারী ভূমি র্কমকর্তা মুনতাসিন হাসান। কোন নোটিশ ছাড়াই বৈধ্য দখলদারীর ভূমি থেকে উচ্ছেদ করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছবি ভাইরাল ও স্থানীয় জনসাধারনের মাঝে চরম ক্ষোব বিরাজ করছে।
এই বিষয়ে ভুক্তভোগী আ,লীগ নেতা জেলা প্রশাসক ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের সুদৃষ্টি কামনা করছেন এবং ন্যায় বিচারের জন্য প্রার্থী হয়েছেন।

জানাযায়,উপজেলা বাদাঘাট ইউনিয়নের বাদাঘাট বাজারের সভাপতি ও বাদাঘাট ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সেলিম হায়দারের বৈধ ভূমিতে নিজ বাড়িতে যাবার সড়কে নিজ পরিবারের নিরাপত্তার স্বার্থে টিন দিয়ে বেড়া দিয়েছেন। এতে করে এলাকার কিছু স্বার্থনেশ্বী মহল উদ্দ্যেশ্য প্রনিত ভাবে উপজেলা প্রশাসন ও ভূমি কর্মকর্তাকে নানান ভাবে বুঝানোর চেষ্টা করে। এই প্রেক্ষিতে রবিবার(১৯,মে)দুপুরে ভূমির মালিককে না জানিয়ে ভূমি র্কমকর্তা মুনতাসিন হাসান নিজেই অতি উৎসাহী হয়ে নিজে লোক দিয়ে টিন নিরাপত্তার বেষ্টনী ও স্থাপনা উঠিয়ে দিয়েছেন।

এতে করে সর্ব মহলে প্রশ্ন জেগেছে কেন তিনি এত উৎসাহী হয়ে সামান্য এই কাজটুকু করলেন। অভিযোগ উঠেছে তিনি মোট অংকের টাকার বিনিময়ে এই সামন্য অতি উৎসাহী হয়ে কাজটুকু করেছেন।

যেখানে অনেক অনিয়ম আর দূর্নীতি হচ্ছে আর অবৈধ দখল করে ভোগ করছে লোকজন সেখানে চোখ না পড়ে এখানেই কেন চোখ পড়ল। আর যাদুকাটা নদীতে ড্রেজার দিয়ে বালু পাথর উত্তোলন চলছে সরকারী নিয়ম বঙ্গ করে সেখানে তিনি অভিযান পরিচালনা করেন না জানও না। কারন সেখান থেকে তিনি মোটা অংকের কমিশন পান। আরো জানাযায় ভূমি র্কমকর্তা মুনতাসিন হাসান সিলেট বিভাগের জৈন্তাপুর উপজেলায় থাকায় নিজে অতি উৎসাহী হয়ে বিভিন্ন কাজ করে প্রশাসন ও সরকারকে বেকায়দায় ফেলেছিলেন। যার জন্য তাকে সম্প্রতি জৈন্তাপুর উপজেলা থেকে তাহিরপুর উপজেলায় বদলী করা হয়।

ভুক্তভোগী বাদাঘাট ইউনিয়নের বাদাঘাট বাজার বনিক সমিতির সভাপতি ও বাদাঘাট ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সেলিম হায়দার জানান,আমি জানিনা আমার বৈধ ভূমি থেকে আমাকে উচ্ছেদ করা হয়েছে। আমাকে নোটিশ করতে পারতেন। কিন্তু তিনি নিজে কেন এত উৎসাহী হয়ে আমার ভূমি থেকে আমাকে উচ্ছেদ করলেন কিসের জন্য। আমি ত কারো জায়গা দখল করেনি। অবৈধ ভাবে দখল করেনি। তাহলে কেন তিনি আমার সাথে এই অন্যায় করলেন। জেলা প্রশাসক ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের সুদৃষ্টি কামনা করছেন এবং ন্যায় বিচার চাইছি।

এ বিষয়ে তাহিরপুর উপজেলা ভূমি র্কমকর্তা মুনতাসিন হাসান জানান,আমি কাগজ দেখে ঐ জায়গা উচ্ছেদ করেছি। এছাড়াও ঐ ভূমির মালিককে জানিয়েছিলাম।

The post তাহিরপুরে এসি ল্যান্ডের কান্ড : দখলদারীত্ব ভূমি থেকে জোরপূর্বক উচ্ছেদ appeared first on DAILYSYLHET.COM | SYLHET NEWS | BANGLA NEWS.